শহরজুড়ে তারের জঞ্জাল: নজরদারির অভাবে দুর্ঘটনার আশঙ্কা!

প্রকাশিত: ৪:০৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২০

শহরজুড়ে তারের জঞ্জাল: নজরদারির অভাবে দুর্ঘটনার আশঙ্কা!

মোঃ আব্দুল কাইয়ুম,মৌলভীবাজার: গত ২৮ জানুয়ারি মৌলভীবাজার শহরের সাইফুর রহমান সড়কের পিংকি সু-স্টোর নামের একটি জোতার দোকানে স্মরণকারের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে একই পরিবারের পাঁচজন নিহতের ঘটনার পর থেকে শহর জুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ আতঙ্ক শহরের অন্যতম এই বাণিজ্যিক সড়কের ব্যবসায়ীদের যেনো কিছুতেই কাটছেনা। ঘটনার পর থেকে নজর শহরের বাণিজ্যিক এলাকা পশ্চিমবাজার ও সাইফুর রহমান সড়কের পাশের ভবন ঘেঁষে পিডিবির তারের জঞ্জাল নিয়ে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়,শহরের সাইফুর রহমান সড়ক ও পশ্চিমবাজার সড়কে পিডিবির বৈদ্যতিক খুঁটি দিয়ে এলোমেলো বৈদ্যতিক তারের জটলা একই সাথে রয়েছে ক্যাবল নেটওয়ার্কের তারসহ বিভিন্ন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের সংযোগ। প্রতিটি খুঁটি ঘিরে একাধিক প্রতিষ্ঠানের সংযোগ লাইন থাকার কারনে দুর্ঘটনার আশঙ্কা মাথায় নিয়ে ব্যবসায়ীরা ব্যবসা পরিচালনা করছেন।

ব্যবসায়ীদের অভিযোগ শহরের স্যালিনি জুয়েলার্সের সামনে ও রাজিয়া ক্লথ ষ্টোরের সামনের দুটি খুঁটির মধ্যখানে পিডিবির যে ট্রান্সফরমার রয়েছে সেখানের সংযোগ লাইনে বৃষ্টির পানি লাগা মাত্রই অনেক সময় বৈদ্যতিক সর্ট লেগে আগুনের স্ফুলিং তৈরি হয়। একারনে সড়কে চলাচলকারী সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীরা আতঙ্কে থাকেন। শুধু ট্রান্সফরমার নয় প্রতিটি ভবন ঘেষে যে বৈদ্যতিক খুঁটি রয়েছে তাতে অতিরিক্ত তারের জঞ্জাল থাকার কারনে যেকোন সময় ঘটতে পারে ভয়াবহ অগ্নি দুর্ঘটনা।

ব্যবসায়ী আব্দুর রহমান অভিযোগ করে বলেন , বৈদ্যতিক ঝুঁকিপূর্ণ লাইনের কারনে আমরা খুব বিপদের মধ্যে আছি,যেকোন সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তিনি বলেন, খুঁটির মধ্যে এলোমেলো তারের জঞ্জাল থাকলেও কোন নজরদারি নেই বিদ্যুৎ কতৃপক্ষের।

মৌলভীবাজার চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সাবেক প্রেসিডেন্ট ডাঃ এম.এ আহাদ বলেন, বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ সংযোগ দিয়েই নিজেদের কাজ শেষ, পরবর্তীতে তাদের কোন নজরদারি নেই। তিনি বলেন, প্রতিটি বৈদ্যতিক খুঁটি থেকে বিদ্যুৎ লাইনের পাশাপাশি একই সাথে ইন্টারনেট ও ক্যবলনেটওয়ার্কের তার রয়েছে এগুলো অপসারণ প্রয়োজন,এই তারের জঞ্জাল নিয়ে পিডিবি তদারকি না করলে দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা থেকে যায়।

মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব ফজলুর রহমান বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমরা উদ্যেগ নেবো যাতে তার গুলো নিয়ন্ত্রিত থাকে, সবার সাথে আলাপ আলোচনা করেই বিষয়টি সমাধানের দিকে যাবে বলে জানান মেয়র ফজলুর রহমান।

এবিষয়ে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) নির্বাহী প্রকৌশলী হাবিবুল বাহার বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমাদের নিকট কেউ কোন আবেদন করেননি। তবে খুঁটি গুলোতে অনিয়ন্ত্রিত তারের কারনে শহরের সৌন্দর্যহানী হলে এটি পৌরসভা দেখার কথা। তিনি জানান সামনে পৌরসভার সাথে বৈঠকে বিষয়টি পৌরসভার মেয়রের সাথে আলোচনা করা হবে।

শহরের তরুণ ব্যবসায়ী শাহরিয়ার মোস্তফা তানিম বলেন, অতীতে বৈদ্যতিক তারের কারনে দুর্ঘটনা ঘটেছে, আমরা অনিয়ন্ত্রিত তারের কারনে নিরাপদ নই। তার দাবী বৈদ্যতিক খুঁটি থেকে অনিয়ন্ত্রিত তার অপসারন করতে হবে।

আরেক ব্যবসায়ী সুমন আহমেদ বলেন, আমরা পৌরসভা ও পিডিবির সাথে বিষয়টি নিয়ে আলাপ করেছি আশা করি বিষয়টি দ্রæত সমাধান হবে।

এদিকে শহরের আদালত সড়কের বিভিন্ন ভবনের সামনেও খুঁটিতে তারের এলোমেলো লাইন দেখা গেছে। সরকারি কলেজের ঠিক সামনের মার্কেট ঘষে বৈদ্যতিক খুঁটির মধ্যে এমনভাবে তার লাগানো হয়েছে সেখানে পিছনের মার্কেটের দু’তলার রুমগুলো ঠিকমত দেখা যায়না। ঐ মাকের্টের এক তরুন ব্যবসায়ী অভিযোগ করে বলেন, আমরা মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে আছি, একটি খুঁটি ঘিরে তারের জটলা নিয়ে বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষের কোন মাথা ব্যথা নেই।

ছড়িয়ে দিন