শ্রীদেবীর মৃত্যু মানুষকে সত্যি ভাবিয়ে তুলেছে

প্রকাশিত: ১:২৯ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৮

শ্রীদেবীর মৃত্যু মানুষকে সত্যি ভাবিয়ে তুলেছে

শিরীন   ওসমান

শ্রীদেবীর মৃত্যু মানুষকে সত্যি ভাবিয়ে তুলেছে। শ্রীদেবী দক্ষিন ভারতের মেয়ে। ছোটবেলায় নাচ শিখতেন। শিশু বয়স থেকে অভিনয় করে আসছেন। পরিবারে স্বাচ্ছন্দ আনতে সাহায্য করেছেন। দক্ষিন ভারতে ভাল নাম করে ফেলেছিলেন।তার পেশার প্রতি প্রচুর নিষ্ঠাবান ছিলেন।

বলিউডে এসে জায়গা করে নিলেন। দর্শকরা তার। নাচ এবং কৌতুক ভরা অভিনয়ে অত্যন্ত মজা পেতো। অভিনয়ে হাস্যরস আনা সহজ কাজ নয়। কিন্তু শ্রীদেবী কাজটি সহজে করে ফেলতেন। নাচেও ভিন্ন স্টাইল যোগ করতে পেরেছিলেন।একের পর এক তার হিট ছবি রিলিজ পায়। বহু বছর বলিউডে প্রথম স্থানটি দখল করে রাখতে পেরেছিলেন।

বিবাহিত ফিল্ম প্রডিউসার বলি কাপুরের সাথে প্রেম হয়।অনিল কাপুরের বড় ভাই। বিয়ের আগে প্রেগনেন্ট হয়ে পড়েন। বনি কাপুরের স্ত্রী দ্বারা নির্যাতিত হন।মানসিক এবং শারীরিক ভাবে।বনি শ্রীদেবীর পাশে ছিলেন। তাদের বিয়ে হয়। দুটি কন্য সন্তান হয়। নিরলস পরিশ্রম এবং গভীর মনযোগের সাথে সংসার জীবন চালান। ক্রমাগত নিজেকে গ্রমিং করে যেতে থাকেন।

শ্রীদেবী দক্ষিনের একটি সাধারন পরিবারের মেয়ে। সেলিব্রেটি লাইফ হ্যান্ডল করতে তিনি যথেষ্ট সজাগ ছিলেন। নিজের প্রতিটি পদক্ষেপে বিশেষ ভাবে সচেতন ছিলেন। ফিগার,ফ্যাশন,রূপচর্চা সন্তান বড় করা সামাজিক জীবন যাপন সেলিব্রেটিদের মত চালিয়ে যাচ্ছিলেন। প্রতিটি পদক্ষেপ পরিচর্যার পরিচয় দেন। এই বিষয় গুলো আয়ত্ব করতে হয়েছিল শ্রীদেবীকে।পরিকল্পনা মাফিক নিজের মেয়েদের ক্যারিয়ার তৈরিতে মনযোগী ছিলেন। শ্রীদেবী নিজেকে গ্রুমিং করতে যে পরিমাণ পরিশ্রম করেছেন, আমার মনে হয় না আর কেউ তার সমকক্ষ ছিলেন।রেখাও নিজেকে গড়েছেন। কিন্তু তিনি বিবাহিত জীবনের ঝুঁকি এড়িয়ে গেছেন।

ক্যারিয়ার, সংসার এবং নিজের সেলিব্রেটি জীবন। সবকিছুর টানাপোড়েনে একজন মানুষের হৃদয়যন্ত্র হঠাৎ করে বিকল হতেই পারে। শ্রীদেবী তার সহজাত জীবন থেকে অন্য জীবনধারা বয়ে নিয়ে গেছেন প্রচুর অধ্যবসায়ের মধ্য দিয়ে। নিজের জীবন যেন নিজের ছিলনা। একটি স্ট্রাকচারে বন্দি করে ফেলা।পুরো বদলে ফেলা কী সম্ভব? যে আলোয় তার জন্ম এবং বেড়ে ওঠা, তার বিপরীত জীবনের সাথে মানিয়ে চলার লড়াই করে গেছেন মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

লাইভ রেডিও

Calendar

May 2024
S M T W T F S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031