সাভারে ভূমি জরিপে বাধা সৃষ্টি করে প্রকাশ্যে চাঁদা্বাজি ও মারধর

প্রকাশিত: ১০:২০ পূর্বাহ্ণ, জুন ১, ২০১৮

সাভারে ভূমি জরিপে বাধা সৃষ্টি করে প্রকাশ্যে চাঁদা্বাজি ও মারধর

সাদ্দাম হোসেন
সাভারের পোড়াবাড়ি মাঝিপাড়া এলাকায় ভূমি জরিপের কাজে বাঁধা সৃষ্টি করে এলাকার দুধর্ষ সন্ত্রাসী বাকী, সালাম, রাকিব ও তাদের সাঙ্গপাঙ্গরা প্রকাশ্যে চাঁদা আদায় ও সাধারণ মানুষকে মারধর করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার( ৩১ শে মে) এব্যাপারে মাঝিপাড়া এলাকার নূর ইসলাম মোল্লা সাভার মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগে বাকী, সালাম ও রাকিবসহ অজ্ঞাত আরো ৪-৫ জনকে আসামী করা হয়েছে। অভিযোগে বলা হয়েছে, বাকী, সালাম, রাকিব ও তাদের সহযোগী সন্ত্রাসীরা ভূমি জরিপের জন্য প্রত্যেক বাড়ি থেকে ২৫০০ টাকা করে চাঁদা আদায় করছে। যারা চাঁদা দিচ্ছে না তাদের জায়গা তারা জোরপূর্বক জরিপ করতে দিচ্ছে না এবং তাদের মারধরসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি প্রদান করছে।
অভিযোগে আরো বলা হয়েছে, নুর ইসলাম মোল্লা তাদের চাঁদা না দিলে তারা তার সাথে খারাপ আচরণ করে ও ভয়ভীতিসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি প্রদান করে। কিন্তু এরপরও নূর ইসলাম তাদের চাঁদা না দিলে বৃহস্পতিবার বিকাল ৪ ঘটিকায় তারা তার বাড়িতে প্রবেশ করে এবং পূর্বের দাবিকৃত ২৫০০ টাকা চাঁদা চায়। নূর ইসলাম মোল্লা চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে বাকী, সালাম, রাকিবসহ অজ্ঞাত আরো ৪-৫ জন সন্ত্রাসী একযোগে তার উপর ঝাপিয়ে পড়ে। তারা এলোপাথাড়িভাবে নূর ইসলাম মোল্লাকে মারধর করে এবং চাঁদা না দিলে বাড়িঘর পুড়িয়ে ফেলার হুমকি দেয়।
এব্যাপার পোড়াবাড়ি মাঝিপাড়া এলাকার জাকির হোসেন বলেন, তার বাড়ির ১ শতাংশ জমি জরিপের জন্য কিছু লোক এসে ২৫০০ টাকা নিয়ে গেছে। তবে তাদের নাম পরিচয় সম্পর্কে কিছু বলতে পারেননি তিনি। এ টাকা সার্ভেয়ারের নাম করে তার কাছ থেকে নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।
একই এলাকার নান্নু মিয়ার স্ত্রী মমতাজ বেগমের থেকে তার ৪ শতাংশ জায়গা জরিপের জন্য ২৪০০ টাকা নেয়া হয়েছে। এব্যাপারে মমতাজ বেগম বলেন, তার কাছে কিছু লোক এসে বাড়ির জায়গা জরিপের জন্য ২৫০০ টাকা চায়। সে তাদের ২০০০ টাকা দিলে তারা তা নিতে অস্বীকৃতি জানায় এবং ২৫০০ টাকাই দাবি করে। পরে সে ধার করে তাদের আরো ৪০০ টাকা দেয়। তার কাছ থেকেও সার্ভেয়ারকে দেয়া হবে বলে টাকা নেয়া হয়েছে।
গ্রামের লোকজন জানায় তাদের কাছ থেকে কোনোপ্রকার রশিদ ছাড়াই এ টাকা আদায় করা হয়েছে। টাকা নেয়ার পর তাদের কোনো ডকুমেন্ট দেয়া হয়নি। যারা টাকা নিয়েছে তারা টাকা নেয়ার সময় বলেছে, এ টাকা সার্ভেয়ারকে দেয়া হবে।
তবে সাভার উপজেলার সহকারি সেটেলমেন্ট অফিসার আমির হোসেন এ ব্যাপারটি সম্পর্কে অবহিত নন বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন।
এব্যাপারে সাভার মডেল থানায় দায়েরকৃত অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা এস আই দিপঙ্কর বলেন, এখনো এ ব্যাপারে কোনো মামলা হয়নি। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই মামলা এবং আসামীদের শাস্তির আওতার আনা হবে বলে গণমাধ্যমকে জানান তিনি।

Calendar

March 2021
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031  

http://jugapath.com