সিলেটে তৈরী হচ্ছে ইলেকট্রনিক্স সিটি, কর্মসংস্থান হবে ৬০ হাজার লোকের

প্রকাশিত: ৫:৫৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২, ২০১৬

সিলেটে তৈরী হচ্ছে ইলেকট্রনিক্স সিটি, কর্মসংস্থান হবে ৬০ হাজার লোকের
সিলেট বাংলা নিউজঃ সিলেটে এগিয়ে চলছে দেশের প্রথম ইলেকট্রনিক্স সিটির কাজ। দেশের চাহিদা মিটিয়ে ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী বিদেশে রফতানি ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ১৬৭ একর জায়গাজুড়ে স্থাপন করা হচ্ছে এই ইলেকট্রনিক্স সিটি।

বর্তমানে প্রকল্পের মাটি ভরাট কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। মেগা সিটি গড়তে ওই প্রকল্পের জন্য ইতোমধ্যে আরও ৬০০ একর জায়গা বরাদ্দের আবেদন জানানো হয়েছে মন্ত্রণালয়ে।

ইলেকট্রনিক্স সিটির উদ্বোধন হলে এখানে ৬০ হাজারের বেশি লোকের কর্মসংস্থান হবে বলে জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমদ।

জানা যায়, সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ইলেকট্রনিক্স সিটি নির্মাণের উদ্যোগ নেয়।

গত ২১ জানুয়ারি সিলেট সফরে এসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সিটির আনুষ্ঠানিক ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। তবে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের আগ থেকেই ইলেকট্রনিক্স সিটি নির্মাণের কাজ শুরু হয়।

প্রায় ৮০ দশমিক ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিতব্য এ ইলেকট্রনিক্স সিটিতে উৎপাদন করা হবে বিভিন্ন ধরণের ইলেকট্রনিক্স পণ্য ও যন্ত্রাংশ। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে দেশের চাহিদা মিটিয়ে উৎপাদিত পণ্য বিদেশেও রফতানি করা সম্ভব হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

ওই সিটিতে ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী তৈরি ছাড়াও নির্মাণ করা হবে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, আইসিটি পার্ক ও সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বে (পিপিপি) বিভিন্ন ধরণের ইলেকট্রনিক্স প্লান্ট।
এতে একদিকে যেমন বিপুল পরিমাণ লোকের কর্মসংস্থান, রফতানি আয় বৃদ্ধি ও তথ্য প্রযুক্তির প্রসার ঘটবে অন্যদিকে দক্ষ জনবলও তৈরি করা হবে।

প্রকল্পটির মেয়াদ ধরা হয়েছিল ২০১৩ সালের জুলাই থেকে ২০১৬ সালের জুলাই পর্যন্ত। কিন্তু এর মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ হচ্ছে না। দেরিতে কাজ শুরু হওয়ায় এখন কেবলমাত্র মাটি ভরাট চলছে।

তবে প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হলেও ইলেকট্রনিক্স সিটি নির্মাণে কোন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছেন সিলেটের জেলা প্রশাসক জয়নাল আবেদীন।

নির্ধারিত সময়ের পর প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ার পাশাপাশি বরাদ্দকৃত অর্থের পরিমাণও বাড়তে পারে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে।

সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. জয়নাল আবেদীন জানান- ইলেকট্রনিক্স সিটির জন্য সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ১৬৭ একর জায়গা বরাদ্দ নেয়া হয়েছে।

ওই জায়গায় এখন মাটি ভরাট কাজ চলছে। ইলেকট্রনিক্স সিটির জন্য আরও প্রায় ৬০০ একর জায়গা বরাদ্দের জন্য মন্ত্রণালয়ে  আবেদন করা হয়েছে। জায়গা বরাদ্দ পাওয়া গেলে এটি মেগাসিটিতে পরিণত হবে।

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমদ জানান- ইলেকট্রনিক্স সিটির কাজ এগিয়ে চলছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হওয়ার পর অন্তত ৬০ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হবে।