সৌদি’র সন্ত্রাসবিরোধী জোটে বাংলাদেশের যোগ দেয়া নিয়ে প্রশ্ন আশরাফের

প্রকাশিত: ৬:২৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০১৬

সৌদি’র সন্ত্রাসবিরোধী জোটে বাংলাদেশের যোগ দেয়া নিয়ে প্রশ্ন আশরাফের

এসবিএন ডেস্ক: সৌদি আরবের নেতৃত্বে ৩৪টি দেশের ইসলামী সামরিক জোটে বাংলাদেশের যোগদানের বিষয়ে জানতে চাইলেন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

মন্ত্রিসভা বৈঠকে অনানুষ্ঠানিক আলোচনায় এ বিষয়টির সূত্রপাত করেন তিনি। একাধিক সিনিয়র মন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, মন্ত্রিসভা বৈঠকে অনানুষ্ঠানিক আলোচনায় বিষয়টি উঠে আসে।

সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সন্ত্রাসবিরোধী জোটে অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে বলেন, সৌদি জোটে যোগদান আমরা কি প্রক্রিয়ায় করতে চাই। এ বিষয়টি এখনও পরিষ্কার নয়। আমার মনে হয় সৌদি জোটে বাংলাদেশ কীভাবে অংশ নিচ্ছে এ বিষয়টি জানা প্রয়োজন। এটা কি সামরিক জোট?

এ ধরনের কোনো জোটে যেতে জাতীয় সংসদের অনুমোদন নিতে হয়। আমি বিষয়টি সম্পর্কে জানি না। পত্রিকায় দেখলাম বাংলাদেশ সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন জোটে যোগ দিতে যাচ্ছে। সৈয়দ আশরাফের বক্তব্যের পর আরও দুইজন মন্ত্রী প্রসঙ্গটি নিয়ে কথা বলেন।

একজন মন্ত্রী বলেন, ওআইসি’র (অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক করফারেন্স) সদস্য হওয়া সত্ত্বেও সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন এ জোটে ইরানসহ কয়েকটি দেশ যোগ দিচ্ছে না।

কিন্তু বাংলাদেশ কেন যোগ দিয়েছে? সৈয়দ আশরাফের কথার সূত্র ধরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী সৌদির নেতৃত্বে জোটে যাওয়ার বিষয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ব্যাখ্যা করেন।

তিনি বলেন, এটা কোনো সামরিক জোট নয়। চলমান বিশ্ব পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে সন্ত্রাস দমনে মুসলিম দেশগুলোর একটি প্ল্যাটফরম। এটা সন্ত্রাসবিরোধী সমঝোতা চুক্তি।

এছাড়া, জোটের বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছায়নি। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা থামিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বিষয়ে কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী তার সংক্ষিপ্তভাবে মন্ত্রিসভাকে বলেন, বাংলাদেশ ‘কারও সঙ্গে শত্রুতা নয়, সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব’- এ পররাষ্ট্রনীতিতে বিশ্বাসী।

আমি মনে করি এ বক্তব্যের মাধ্যমে বাংলাদেশ পররাষ্ট্রনীতিতে তার অবস্থান পরিষ্কার করেছে। এই নীতি আমরা অনুসরণ করছি।

উল্লেখ্য, সৌদির নেতৃত্বে এ জোটে ইসলামী দেশগুলোকে যোগ দেয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হলেও ইরান, ইরাক, আফগানিস্তান, মিশর এবং সিরিয়াকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

এ বিষয়ে গত বছরের ১৫ই ডিসেম্বর সরকারের পক্ষ থেকে সৌদি জোটে যোগদানের বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়।

ছড়িয়ে দিন