সৌদির হাতে মাত্র ১৩ বছর, তারপর…

প্রকাশিত: ২:১৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৬

সৌদির হাতে মাত্র ১৩ বছর, তারপর…

এসবিএন তথ্য ডেস্ক: সৌদি আরবের হাতে আছে মাত্র ১৩ বছর। তারপর মহাবিপদের ঘনঘটা। অস্তিত্ব সংকটে পড়বে সৌদি আরবের জনবসিত। কিন্তু কেন?

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ১৩ বছর পর পানি থাকবে না সৌদি আরবে। অর্থাৎ ভূগর্ভস্থ পানি শেষ হয়ে যাবে। তখন অন্য দেশ থেকে পানি কিনে পান করতে হবে সৌদি আরবের লোকদের।

সৌদি সরকার এরই মধ্যে সতর্কতা উচ্চারণ করেছে। জনগণের প্রতি জানানো হয়েছে, পানির মজুদ নিঃশেষ হয়ে আসছে। পানি ব্যবহারের জন্য জনগণকে কর দিতে হবে পারে।

দ্য নিউ আরব সংবাদপত্রের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বের যেকোনো দেশের তুলনায় জনপ্রতি পানি ব্যবহারের হার সৌদি আরবে সবচেয়ে বেশি। গড়ে একজন নাগরিক প্রতিদিন ২৬৫ লিটার পানি ব্যবহার করে। এই পরিমাণ ইউরোপের যেকোনো দেশের একজন মানুষের ব্যবহৃত পানির চেয়ে দ্বিগুণ।

সৌদি আরবের কৃষি মন্ত্রণালয়ের প্রাক্তন আন্ডারসেক্রেটারি আলি আল তাকহিস বলেছেন, কৃষিক্ষেত্রে পানি ব্যবহারের পদ্ধতি যদি পরিবর্তন করা না হয়, তবে মহাবিপর্যয় ঘটে যাবে সৌদি আরবে। যতটুকু ভূগর্ভস্থ পানি আছে, তা মজুদ রাখতে হবে।

জলবায়ু বিষয়ক সৌদি অধ্যাপক আবদুল্লাহ আল মিসনিদ মনে করেন, গম চাষের জন্য ভূগর্ভস্থ পানি ব্যবহার করায় পানির সংকট হচ্ছে। আমরা গম চাষের জন্য শুষ্ক মাটিতে ভূগর্ভস্থ বিশুদ্ধ পানি ব্যবহার করছি। কিন্তু বিকল্প উপায়ে আমরা গমের চাহিদা মেটাতে পারি।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ পানির দামে তেল পাওয়া যায় না। ঠিক তার উল্টো সৌদি আরবে। সেখানে তেলের দামে পানি পাওয়া যায় না। সহজলভ্যতার ওপর বিষয়টি নির্ভর করে। কিন্তু একটি কথা মাথায় রাখতে হবে- তেল ছাড়াও মানুষের অস্তিত্ব টিকে থাকবে। কিন্তু পানি ছাড়া মানুষ থাকবে কি?

তথ্যসূত্র : মেট্রো অনলাইন।

ছড়িয়ে দিন