স্কুলশিক্ষার্থীদের জন্ম সনদে টিকার নিবন্ধন শুরু

প্রকাশিত: ৯:২৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৫, ২০২১

স্কুলশিক্ষার্থীদের জন্ম সনদে টিকার নিবন্ধন শুরু

রোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে ১২ থেকে ১৭ বছরের স্কুলশিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনতে জন্ম সনদের মাধ্যমে সুরক্ষা নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। পরীক্ষামূলকভাবে টিকা নেওয়া স্কুলশিক্ষার্থীদের ১০ থেকে ১৪ দিনের পর্যবেক্ষণ শেষে দেশের ২১টি কেন্দ্রে বড় পরিসরে টিকা কার্যক্রম শুরু হবে।

 

শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মুখপাত্র ও লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম।

 

তিনি বলেন, জন্ম সনদ দিয়ে স্কুলশিক্ষার্থীদের নিবন্ধন উন্মুক্ত হয়েছে। আজ থেকে সুরক্ষা অ্যাপ ও ওয়েবসাইটে নিবন্ধন করা যাবে। তারাই নিবন্ধন করতে পারবে, যাদের নাম স্কুলের মাধ্যমে শিক্ষা মন্ত্রণালয় হয়ে আইসিটি মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

 

নাজমুল ইসলাম বলেন, আইসিটি মন্ত্রণালয় এসব নামের তথ্য সুরক্ষায় ইনপুট দেওয়ার পর শিক্ষার্থীরা সরাসরি সুরক্ষায় নিবন্ধন করতে পারবে। এই প্রক্রিয়া অনুসরণ না করে শুধু জন্ম সনদ দিয়ে চেষ্টা করলে নিবন্ধন করা যাবে না।

 

এদিকে, বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) মানিকগঞ্জে পরীক্ষামূলকভাবে মোট ১২০ শিক্ষার্থীকে ফাইজারের টিকা দেওয়া হয়েছে। মানিকগঞ্জ সরকারি উচ্চ বালক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র আদনান আজাদকে দিয়ে স্কুলগামী শিক্ষার্থীদের পরীক্ষামূলক করোনা টিকার প্রয়োগ কার্যক্রম শুরু হয়।

 

টিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধন গিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, দেশের প্রায় ২১টি জায়গায় এই টিকা কর্মসূচি শুরু করব। প্রাথমিকভাবে প্রায় ৩০ লাখ শিক্ষার্থীকে টিকা দেবো। ফাইজারে টিকা খুবই ভালো মানের। ইউরোপের অনেক দেশেই এই টিকা দেওয়া হচ্ছে।

 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের ছেলে-মেয়েরা স্কুলে আসছে। তারা যাতে করোনা থেকে নিরাপদে ও সুরক্ষিত থাকে তাই পরীক্ষামূলকভাবে স্কুলশিক্ষার্থীদের টিকা প্রয়োগ শুরু করলাম। আমাদের হাতে এখন ৬০ লাখ টিকা আছে। যা আমরা ৩০ লাখ ছেলে-মেয়েদের দিতে পারব। আপনারা জানেন, বাংলাদেশে প্রায় এক কোটির বেশি শিক্ষার্থী রয়েছে। আশা করছি, পর্যায়ক্রমে সবাইকে টিকার আওতায় আনতে পারব।

ছড়িয়ে দিন