স্মৃতির আলো এখনো নেভেনি বিকেলের বিভা থেকে🍂🍂🍂

প্রকাশিত: ৩:০১ অপরাহ্ণ, জুন ৮, ২০১৮

স্মৃতির আলো এখনো নেভেনি বিকেলের বিভা থেকে🍂🍂🍂

নাজমীন মর্তুজা

এখানে কয়েকদিন ধরে বৃষ্টি হচ্ছে , দারুন বৃষ্টি , মনে হচ্ছে পথের ওপরে মেঘের মেয়ে দাঁড়িয়ে পা ছাঁড়িয়ে কাঁদছে । চোখের জলে নাকের জলে একাকার , লক্ষণ দেখে মনে হচ্ছে এবার বন্যা হবেই হবে । ইতি মধ্যে অন্যান্য শহর গুলোতে হয়ত লেগে গেছে আমি বুঝতে পারছি না । ছোট বেলায় বন্যা মানে ,কি আনন্দ ,কি আনন্দ কি ,আনন্দ ! নাচে আমার চিত্ত । তা তা থৈ থৈ তা তা থৈ থৈ আঙিনায় জল ঢুকে গেলে , কাগজ ছেঁড়ো , নৌকা বানাও , আরো মজা পেতাম আব্বা উঠানে ইটের উপর ইট দিয়ে রাস্তা বানাতে গিয়ে ধপাস্ করে মেঝের মধ্যে পড়ে আছাড় খেয়ে ছেতরা ভেতরা ,,,ওহ্ বলেই বলতো এবার বড় বন্যা হবে রে বেটি , হাসিস না মা,, বন্যা মানে আকাল ..মঙ্গা । মেঘ থামে না , কত বলছি লক্ষ্মী আর কাঁদে না , এবার থামো , শুনলে তো ! শুনতাম বঙ্গে বষর্া রানী ফুঁসলে মনসার ফণাও ক্রোধে দুলে উঠে ,তিনি কোন অণ্চল এবার ঠুকরে খাবেন কার কপালে অকালে বরাদ্দ আছে বিষের ছোবল । এদিকে এলোকেশী সর্বনাশী ফুঁসছে তো ফুঁসছেই । বানের জলে আমার অতীতের স্মৃতি গুলো ভাসতে ভাসতে গলে যাচ্ছে । আমি যে শহরে থাকি এ শহর এখন পানি থৈ থৈ । লোডশেডিং এখানে হয় না বলে কিছু অন্ধকার থেকে দুরে থাকি । যে মেয়ে আমি পানি দেখলেই হাস্য করতাম লাস্য করতাম , সেই কিনা এখনকার এমন বন্যা দেখলে বসে বসে মন খারাপ করে থাকি । আগে বৃষ্টিকে আমার মাঝে নিয়ে ভাবতাম , এখন ভাবি সবাই কে নিয়ে , নদীর কাছার ভাঙ্গার মত আমারও মন ভেঙ্গে যায় । এমন বষর্ার দিনে আমার ভাই টার কথা খুব মনে পরে , সারাটা জীবন যে আমার সাথে লড়ে গেল , বষর্ার দিনে টেংরা মাছের ঝোল দিয়ে নাপা শাকের রান্না , ডিম ওয়ালা টেংরা মাছ টা ওর চাই চাই , আমার পাত থেকে কত তুলে দিয়েছে আম্মা ওর পাতে , ঘানির ভাঙ্গা তাজা সর্ষের তেলে বাগার দেওয়া শিলবিলাতী আলুর ভত্তা , আমার ভীষণ প্রিয় সাথে কাটারী চালের ভাত । এই তেল কাটারী চালের মুড়ি মাখা সাথে সীম ভাজি , কালোজিরা চালের জাঁউ ভাতের সাথে সিদলের ভতর্া দুদার্ন্ত স্বাদু । এখানে বসেও আমি এখনো ঘানির প্রাচীন শব্দ শুনি । চোখ বাঁধা গরু চক্রাকারে বহুবষর্ ঘুরতে ঘুরতে হেই হেই হুট ধমকে দাঁড়ায় । চোখের বাঁধন খোলার পর গরুর চোখ গুলোকে ভীষণ ছন্নছাড়া মনে হয় । আম্মার বেড়ে দেওয়া ভাতে আমার ভাইটা লুকিয়ে রাখতো কাঁচা মরিচ , বলতো বু জান পুদিনার পাতার ভত্তা খা খা , ভাইটার একাগ্রতা আমার মুখের গ্রাসে কাঁচা মরিচ দাঁতে কুটুস। ঝালে ভত্তির্ কত কথার টুকরো টুকরো আদান প্রদান । একালে বোনে রা কি ভাইদের জন্য রাধে ? এখন জীবন চলছে সম্পর্ক বিহীন জীবন যাপন । প্্রত্যেকটা দিন নাম হীন অচেনা দিন । ধাতব জীবন । নিত্য নতুন মেশিন চিনছে মানুষ , আসলে মানুষ কি মানুষ কে চিনছে ।