হলফনামায় তথ্য গোপন, তবে কি এবার মেয়র পদ হারাবেন চিশতি ?

প্রকাশিত: ৬:০৭ অপরাহ্ণ, মে ২৯, ২০২২

হলফনামায় তথ্য গোপন, তবে কি এবার মেয়র পদ হারাবেন চিশতি ?

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি :

সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়রের বিরুদ্ধে দুর্নীতিসহ নানা অভিযোগের পর এবার নির্বাচনী হলফনামায় মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পৌর আইন অনুযায়ী এসব অভিযোগে মেয়র পদে থাকার যোগ্যতা হারাতে পারেন তাসকিন আহমেদ চিশতি।

নির্বাচনী হলফনামায় মিথ্যা তথ্য দেওয়ায় মেয়র চিশতির বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন নুরুল ইসলাম। তিনি শহরের রাজারবাগান এলাকার আব্দুল লতিফের ছেলে।

লিখিত অভিযোগে তিনি জানান, মেয়র তাসকিন আহমেদ নির্বাচনী হলফনামায় শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের এলএলবি (অনার্স) সনদপত্র দাখিল করেছেন। অথচ ২০১৬ সালে দারুল ইহসানের সব সনদপত্র অবৈধ বলে ঘোষণা করে সরকার। হলফনামায় পেশা হিসেবে শিক্ষকতা, চিকিৎসা ও আইনি পরামর্শক হিসেবে উল্লেখ করেছেন। সেখান থেকে তিনি প্রতি বছর ৪ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা আয় করেন। তবে প্রকৃতপক্ষে তিনি শিক্ষকতা করেন না, আইনজীবীও নন আবার চিকিৎসকও নন।

সাতক্ষীরা আদালতের আইনজীবী এড. সাহেদুজ্জামান সাহেদ বলেন, মেয়র তাসকিন আহমেদ চিশতী আইনজীবী নন। আর আইনজীবীর না হলে কেউ আইনি পরামর্শ দিতে পারেন না। হলফনামায় তথ্য গোপন করে মিথ্যাচার করায় স্থানীয় সরকার পৌরসভা আইন ২০০৯ এর ১৯। (২) (ছ) এবং ৩ উপধারা অনুসারে তিনি মেয়র পদে অযোগ্য।

পৌর এলাকার বাসিন্দা সাতক্ষীরা নাগরিক আন্দোলন মঞ্চের সদস্য সচিব হাফিজুর রহমান মাসুম বলেন, দৃশ্যমান এসব বিষয়গুলো নির্বাচনী হলফনামায় যেভাবে গোপন করেছে বাকি তথ্য খতিয়ে দেখলে আরো অনেক কিছু হয়তো পাওয়া যাবে। মেয়র চিশতি তার শপথ ভঙ্গ করেছেন। আমরা তাকে অপসারণের পাশাপাশি আইনি পদক্ষেপ নেওয়া দাবি জানাচ্ছি।

এদিকে, এসব অভিযোগের বিষয়ে সাতক্ষীরা পৌর মেয়র তাসকিন আহমেদ চিশতকে একাধিকবার মোবাইলে যোগাযোগ করলেও তিনি ফোনকল রিসিভ করেননি।

সাতক্ষীরা জেলা নির্বাচন অফিসের সদ্য বিবাদী নির্বাচন কর্মকর্তা নাজমুল হোসেন বলেন, কেউ তথ্য গোপন করলে সেটি নিয়ে এখন নির্বাচন কমিশনের কিছু করার নেই। এটি নিয়ে কেউ বিক্ষুব্ধ হলে তিনি আদালতে মামলা করতে পারেন।

এরআগে সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়র বিএনপি নেতা তাসকিন আহমেদ চিশতি ভূয়া বিল ভাউচার করে পৌরসভার ৩ কোটির টাকা আত্মসাৎ করেন। ৭৬ লক্ষ ৫৬ হাজার ৯০২ টাকা বিধি বহির্ভুতভাবে পানির বিল মহকূফ, এক কোটি ৩৩ লক্ষ তিন হাজার ২২১ টাকা পৌর কর মহকূফ, বিগত ছয় বছরে নিজ দলীয় কর্মীদের পৌরসভা ফান্ড থেকে এক কোটি ৮ লক্ষ ৮৯ হাজার ৭৪৮ টাকা আর্থিক সাহায্যের নামে আত্মসাৎ করার ঘটনায় আলোচনায় আসে। এসব অভিযোগে গত ১৩ জানুয়ারি সাতক্ষীরা পৌরসভার ১১ জন কাউন্সিলর স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছিলেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Calendar

June 2022
S M T W T F S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
2627282930