হল থেকে বের করে দেওয়ার খবরকে গুজব বললেন উপাচার্য

প্রকাশিত: ৪:৫৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২০, ২০১৮

হল থেকে  বের করে দেওয়ার খবরকে গুজব বললেন উপাচার্য

হল থেকে শিক্ষার্থীদের জোর করে বের করে দেওয়ার খবরকে গুজব বলেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান।১৯ এপ্রিল রাতে কবি সুফিয়া কামাল হল থেকে কিছু ছাত্রীকে হল প্রশাসন বের করে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গিয়েছিল ।
আজ শুক্রবার বাসভবনে সাংবাদিকদের এক ব্রিফিংয়ে সেই অভিযোগ স্রেফ গুজব বলে উড়িয়ে দিলেন উপাচার্য।তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের জোর করে বের করে দেওয়ার মতো কোনো ঘটনা হলে ঘটেনি। এটি সম্পূর্ণরূপে একটি গুজব। জাল ফেসবুক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে হলের বিষয়ে গুজব ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে জড়িত তিন শিক্ষার্থীকে তাদের অভিভাবকদের হাতে তুলে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।’
৮ এপ্রিল শাহবাগ মোড়ে কোটা সংস্কারের দাবিতে অবস্থান নেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনকারীদের হটানোর জন্য রাত ৮টার দিকে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে ও লাঠিচার্জ শুরু করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এরপর শুরু হয় দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া। এ ঘটনায় শাহবাগ-টিএসসি এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। আহত হন অনেকে। পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।

৯ এপ্রিল বিকেল ৪টা থেকে ৬টা পর্যন্ত আন্দোলনকারীদের একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদলের বৈঠক হয়। সে সময় সেতুমন্ত্রী তাদের দাবি পূরণের আশ্বাস দিলে আগামী ৭ মে পর্যন্ত এ আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণা দেন কেন্দ্রীয় কমিটি। তবে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের একাংশ আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।

আন্দোলনে যাওয়ায় ১০ এপ্রিল মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি সুফিয়া কামাল হলের এক ছাত্রীকে মারধর করেন বলে অভিযোগ ওঠে হলের সভাপতি ইফফাত জাহান এশার বিরুদ্ধে।

বিক্ষুব্ধ ছাত্রীরা ঘটনাস্থল থেকে ফেসবুকে লাইভ করেন। ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে খুব দ্রুত। এই ঘটনায় অন্যান্য হলের সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ছাত্রীরা বিক্ষোভ করলে রাত ১টার দিকে হলে যান প্রাধ্যক্ষ সাবিতা রিজওয়ানা রহমান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রাব্বানী। এর দেড় ঘণ্টা পর প্রক্টর জানান, এশাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে হল কর্তৃপক্ষ। মারধরের ঘটনায় রাতেই এশাকে ছাত্রলীগ থেকেও বহিষ্কার করা হয়।

১৩ এপ্রিল ইফফাত জাহান এশার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে ছাত্রলীগ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনও এশার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে নেয়।

এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার মাঝরাতে কয়েকজন ছাত্রীকে সুফিয়া কামাল হল প্রশাসন বের করে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ছাত্রীদের হল থেকে বের করে দেওয়ার প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক বিক্ষোভ করেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

যদিও হল থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন হল প্রাধ্যক্ষ সাবিতা রিজওয়ানা রহমান। শুক্রবার দুপুরে তিনি বলেন, ‘হল থেকে কাউকে বের করে দেওয়া হয়নি। চারজন ছাত্রীর অভিভাবককে ডাকা হয়েছিল কাউন্সিলিংয়ের জন্য, তাদের মধ্যে তিনজনের অভিভাবক লিখিত দিয়ে তাদের মেয়েকে নিয়ে গেছেন।’

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

লাইভ রেডিও

Calendar

May 2024
S M T W T F S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031