ঢাকা ১৮ই জুন ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১১ই জিলহজ ১৪৪৫ হিজরি

হাইমচ‌রের কম‌রেড আবদুল্লাহ সরকার

redtimes.com,bd
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২২, ১০:১০ পূর্বাহ্ণ
হাইমচ‌রের কম‌রেড আবদুল্লাহ সরকার

হাইমচ‌রের কম‌রেড আবদুল্লাহ সরকার। রেড স্যালিউট জানাই।
১৯৬৯ সাল, তখন আমি ৫ ম শ্রেণী‌তে প‌ড়ি। প্রথম মি‌ছি‌লে গেলাম আলগী বাজার থে‌কে হাইমচর স্কুল। আয়োজক তরুন আদুল্লাহ সরকার। ফকফকা সাদা পাঞ্জাবী পড়া রিকসায় দা‌ঁড়ি‌য়ে শ্লোগান দি‌চ্ছেন। “একু‌শে ফেব্রুয়ারী, অমর হোক, শহীদ স্মৃ‌তি অমর হোক, রাষ্ট্র ভাষা বাংলা চাই”। চর ভৈরবীর দি‌কে মি‌ছিল গেল। ফি‌রে এ‌সে অনুষ্ঠান। সৈয়দ ভাইরা গাই‌লো “‌বিচারপ‌তি তোমার বিচার কর‌বে যারা, অাজ জে‌গে‌ছে এই জনতা”। প্রথম শোনা গান। প্রথম র‌ক্তে নাচন শুরু।
এরপর মু‌ক্তিযু‌দ্ধের সংগঠক, দ‌ক্ষিণ চাঁদপুর দা‌পি‌য়ে বেড়া‌নো। ৭১ এ মু‌ক্তি‌যোদ্ধা রিক্রুইট‌মেন্ট। একবার নদী থে‌কে পাক বা‌হিনী এ‌সে গে‌ছে তার বাড়ী‌তে। বাগা‌নের ম‌ধ্যে বাড়ী। বাড়ীর বাই‌রে আখড়া । ‌সেখা‌নে পা‌কিরা। পা‌কিরা বাগান প‌থে ঢুক‌তে ভয় পায়। আবদুল্লাহ সরকার জা‌নেন না, যম এ‌সে হা‌জির। বাগান প‌থে নে‌মে এ‌লেন হা‌তে একটা টর্চ হা‌তে। সাম‌নে পড়‌লো এক গু‌লির রাইফেল হা‌তের এক রাজাকা‌রের। এক রাজাকার তা‌ঁকে চি‌নে গু‌লি কর‌তে রাইফেল তাক কর‌ছি‌লো, অাবদুল্লাহ সরকার রাই‌ফে‌লের মাথাটা ধ‌রে রাজাকার‌টির কপা‌লে টর্চ দি‌য়ে প্রচন্ড এক অাঘাত করেন । রাজাকার কু‌পোকাত। তি‌নি বাগান দি‌য়ে দৌড়। রাজাকা‌রের চিৎকা‌রে অন্য রাজাকার ও সেনারা এ‌লো, খা‌লি বাড়ীটা জ্বা‌লি‌য়ে দিল।
‌দেশ স্বাধীন হ‌লে ১৯৭৩ সালে নির্বাচন কর‌লেন। আওয়ামী সরকার তা‌কে ন‌মি‌নেশন দি‌লেন না। স্বতন্ত্র দাঁ‌ড়ি‌য়ে জি‌তে গে‌লেন। সংসদে একমাত্র বি‌রোধী এম‌পি বঙ্গবন্ধু‌কে প্র‌তি‌দিন জবাব‌দিহি কর‌তে সোচ্চার। যোগ দি‌লেন জাস‌দে।
একবার অামা‌দের স্কুলে এলেন মত বি‌নিম‌য়ে। আমি তখন নবম শ্রেণী‌তে প‌ড়ি, ছাত্রলীগ ক‌রি, তা‌ঁকে জাস‌দে কেন যোগ দি‌লেন, প্রশ্নবা‌নে জর্জ‌রিত ক‌রি অা‌মি। মেহনতী নেতা ইসহাক কাকা আমা‌কে বাহবা দিল। প‌রে অা‌মি যোগ দিলাম ছাত্র ইউ‌নিয়‌নে।
এদিকে হাইমচ‌রের অ‌ভিজাত প‌রিবা‌রের আবদুল্লাহ সরকার হ‌য়ে গে‌লেন খাস কম‌রেড। লড়াকু নেতা। কিন্তু বার বার নির্বাচন ক‌রে হাইমচর চাঁদপুর আস‌নে আর জিত‌লেন না। সমাজ ঋণাত্মক দি‌কে চ‌লে গেল। একসময় ডাকসাই‌টে নেতার দল অ‌নেকটা অকার্যকর। তি‌নি শেষ জীব‌নে ঢাকা ছে‌ড়ে হাইমচর এ‌সে তার ছোট টি‌নের ঘ‌রে থাক‌লেন। নদী বহুবার সরকার বাড়ী ভে‌ঙে‌ছে, রাজন‌ী‌তিও ভে‌ঙে‌ছে তার জীব‌ন বার বার।
জনমানু‌ষের জন্য জীবন যৌবন উৎসর্গ কর‌লেন। প্রা‌প্তি দুঃখজনক।
আমরা বল‌তে পা‌রি হাইমচ‌রে একজন ত্যা‌গি নেতার জন্ম হ‌য়ে‌ছিল যা হাইমচর‌কে গ‌র্বিত ক‌রে‌ছে। ত‌ব্সেম‌য়ের ফে‌রে অ‌নে‌কের রাজনী‌তি সফল না হ‌লেও নী‌তি ঠিক থাক‌লে তাঁ‌কে বিফল বলা যায় না। তি‌নি অাওয়ামী থে‌কে প্র‌তিবা‌দের রাজনী‌তি‌তে এ‌সে সেখা‌নেই ছি‌লেন। ধন্যবাদ তা‌কে, নী‌তির প‌রিবর্তন ক‌রেন‌নি, বিজয় যত দু‌রেই হোক, সমাজত‌ন্ত্রের রাজনী‌তি ক‌রে গে‌ছেন।

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

June 2024
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30