হা- হুতাশ

প্রকাশিত: ৩:২২ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৫, ২০২১

হা- হুতাশ

– মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ

সবার মাঝে পেরেশানি
কী রেখে কী করবে
কোন কাজটি আগে পরে
কোন কাজটি ধরবে?

সকাল থেকে গভীর রাতেও
হয় না কাজের শেষ
পেরেশানির ধকল নিয়ে
যায় কেটে যায় রেশ।

শ্রমিক-লেবার এবং মালিক
সবাই পেরেশান
ছুটোছুটি লুটোপুটি
জাত গেল জাত- মান।

বাড়ির কর্তার হা- হুতাশে
ক্ষিপ্ত  থাকে বউ
কর্তাবাবু ডেকে কাবু
জাহিদ নাহিদ মৌ!

কোথায় থাকো কি ই বা করো
রাখছো না কেউ খোঁজ
সবাই কেবল কর্মবিহীন
যাচ্ছো করে ভোজ!

কোত্থেকে চলে সংসার
কিভাবে হয় আয়
এসব ব্যাপার যেন সবার
কি বা আসে যায়!

খাবার টেবিল থাকবে ভরা
এটাই চাওয়া সবার
মূল চালকের হাল অবস্থা
নিচ্ছে খোঁজ ক’বার!

ডিপ্রেশনে ভোগেন কর্তা
ভাবায় সব কিছু
এই সুযোগে মহামারী
নেয় তার পিছু।

হঠাৎ একদিন ককিয়ে  বলেন
শোনো আমার কথা
ভীষণ ভাবে করছে আমার
বুকের মাঝে ব্যথা।

পারিনি তো যথাযোগ্য
করতে সবার সেবা
দরদমাখা কথাগুলো
শুনবে বলো কে বা!

কথাগুলো বলার মাঝে
থেমে গেল কথা
বুকের মাঝে রইল না আর
কোন রকম ব্যথা।

১৫ জুলাই ২০২১

ছড়িয়ে দিন