হিন্দু মহাজোট  নারায়ণগঞ্জ জেলার মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

প্রকাশিত: ৫:২৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০১৭

হিন্দু মহাজোট  নারায়ণগঞ্জ জেলার মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসের জেরে রংপুর সদর উপজেলার পাগলাপীর  ঠাকুরপাড়া গ্রামে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় এবং সারাদেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার প্রতিবাদে  বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট  নারায়ণগঞ্জ জেলার উদ্দ্যোগে  মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উক্ত মানববন্ধনে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট কেন্দ্রেীয় কমিটির সিনিঃ সহ-সভাপতি মানিক  চন্দ্র সরকার এর সভাপতিত্ত্বে প্রধান অথিতী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রীমতি ঝমুর জ্ঞাঙ্গুলী (সাবেক বিচারক) অন্যান্য অথিতীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা হিন্দু মহাজোটের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি- সুভাষ সাহা, সাঃসম্পাদক অ্যাডঃ রঞ্জীত চন্দ্র দে,দপ্তর সম্পাদক গোপাল চন্দ্র মন্ডল,যুগ্ম-মহাসচিব- সম্ভুনাথ সাহা, প্রচার সম্পাদক-শ্যামল রায়,সহ-প্রচার সম্পাদক-সঞ্জীব মন্ডল, সহ-সমাজ কল্যাণ ও ত্রাণ সম্পাদক লোকনাথ বিশ্বাস,সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শান্তিরঞ্জণ দাস, হিন্দু মহাজোট বন্দর উপজেলা সভাপতি শংকর দাস,সাঃ সম্পাদক প্রভাষক নিরঞ্জন দাস,অড়াই হাজার আহ্বায়ক রঞ্জন চক্রবর্তী ,হিন্দু যুব মহাজোট বন্দর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক রঞ্জিত দাস, হিন্দু ছাত্র মহাজোট বন্দর উপজেলা সভাপতি বিনয় কুমার মন্ডল, সাধারণ দাস প্রার্থ সরাথী দাসস হিন্দু মহাজোটসহ যুব ও ছাত্র মহাজোটের জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে রামু ও নাসিরনগরের মতো রংপুরের ঠাকুরপাড়ার হিন্দুপল্লীতে যে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটানো হয়েছে তা অবশ্যই পূর্বপরিকল্পিত।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের আশা ভরসার প্রতীক। আমরা আশা করি, তিনি এ ঘটনার বিচার করবেন এবং প্রকৃত দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করবেন।

বক্তারা আরও বলেন অবিলম্বে হামলার পরিকল্পনাকারী, উসকানিদাতা ও হামলাকারীদের দল মত নির্বিশেষে বিচারের আওতায়  আনতে হবে। সেই সাথে এ ধরনের সাম্প্রদায়িক হামলা প্রতিরোধে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তারা।