হেফাজতে ইসলামকে জঙ্গী সংগঠন ঘোষণার দাবি জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে স্মারকলিপি

প্রকাশিত: ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১০, ২০২১

হেফাজতে ইসলামকে জঙ্গী সংগঠন ঘোষণার দাবি জানিয়ে  যুক্তরাষ্ট্রে স্মারকলিপি

 

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশকে জঙ্গী সংগঠন ঘোষণার দাবি জানিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এন্টোনি ব্লিঙ্কেন-এর নিকট স্মারকলিপি পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধারক ছয়টি সংগঠন। একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি নিউইয়র্ক শাখা, যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ, ইউএসএ কমিটি ফর সেকুলার এন্ড ডেমোক্রেটিক বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাষ্ট্র শাখা, সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম যুক্তরাষ্ট্র, বাংলাদেশ লিবারেশন ওয়ার ভেটারেনস যুক্তরাষ্ট্র প্রভৃতি সংগঠনের পক্ষ থেকে স্মারকলিপি পাঠানো হয়।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর নেতৃবৃন্দ যদিও এই সংগঠনকে একটি ধর্মীয় সংগঠন দাবি করে, কিন্তু তাদের সকল কর্মকাণ্ড জঙ্গী সংগঠন তালেবান এবং আইসিস-এর মতো। হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ ধর্মের নাম করে তাদের জঙ্গী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে বাংলাদেশের রাজনীতিতে নিজেদের অবস্থান সুদৃঢ় করার চেষ্টা চালিয়ে আসছে।

স্মারকলিপিতে আরও বলা হয়, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ দেশব্যাপী নারী বিরোধী, সংখ্যালঘুবিরোধী এবং স্বাধীনতাবিরোধী সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে বাংলাদেশকে একটি ইসলামিক রাষ্ট্র বানানোর গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। সম্প্রতি বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে দেশব্যাপী বিশেষ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এবং তারও কিছুদিন পূর্বে সিলেটের সুনামগঞ্জের শাল্লা পাড়ায় সংখ্যালঘুদের উপরে সন্ত্রাসী হামলার বিস্তারিতও এই স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সংগঠনগুলোর পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এন্টোনি ব্লিঙ্কেন-এর কাছে জানানো হয়, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ মৌলবাদী সংগঠনটিকে যদি জঙ্গী সংগঠন ঘোষণা দিয়ে দ্রুত নিষিদ্ধ করার চেষ্টা না করা হয়, তাহলে এই সংগঠনটি ধর্মের আড়ালে আরও ভয়াবহ হয়ে উঠে শুধু বাংলাদেশের জন্য নয়, বরং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া সহ যুক্তরাষ্ট্রের জন্যও বিপদজনক হয়ে উঠবে। উপরোল্লিখিত ছয়টি সংগঠনের পক্ষে স্মারকলিপিটি পাঠান একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, বিশিষ্ট বিজ্ঞানী বীর মুক্তিযোদ্ধা ডঃ নুরুন নবী।