১৮০০ শিক্ষক-কর্মচারীকে ৬৪ কোটি ৪৯ লাখ টাকা প্রদান

প্রকাশিত: ৮:১৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৩০, ২০১৮

১৮০০ শিক্ষক-কর্মচারীকে ৬৪ কোটি ৪৯ লাখ টাকা প্রদান

জান্নাতুল ফেরদৌস

পবিত্র হজ্ব ও তীর্থ গমনেচ্ছু অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারীগণকে অনলাইন ব্যবস্থায় বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট এবং অবসর সুবিধার টাকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রদান করা হয়েছে। এ উপলক্ষে কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধা বোর্ড যৌথভাবে আজ ঢাকায় বাংলাদেশ শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস) মিলনায়তনে ভিডিও কনফারেন্সের আয়োজন করে। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী ২০১৮ সালে হজ্ব গমনেচ্ছু ১ হাজার ৩২৯ জনসহ প্রায় ১ হাজার ৮০০ অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারীর মধ্যে অনলাইনের মাধ্যমে ৬৪ কোটি ৪৯ লাখ টাকার কল্যাণ ও অবসর ভাতা প্রদান করেন। হজ্ব ও তীর্থ গমনেচ্ছু শিক্ষক কর্মচারী ছাড়াও মৃত এবং গুরুতর অসুস্থ কিছু শিক্ষক কর্মচারীর কল্যাণ ও অবসর সুবিধার টাকাও প্রদান করা হয়। এসময় শিক্ষামন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সিলেটের বিয়ানীবাজার, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ সদর, ময়মনসিংহের গফরগাঁও এবং রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় কল্যাণ ও অবসর সুবিধাভোগী শিক্ষক কর্মচারী, জনপ্রতিনিধি এবং প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী এসময় বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষক-কর্মচারীদের কল্যানে সম্ভব সবকিছু করছে। সীমিত সম্পদের মধ্যেও শিক্ষক-কর্মচারীদের কল্যানে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের কল্যাণ ভাতা ও অবসর সুবিধা খাতে গত বাজেটে ৮৫০ কোটি টাকা দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, বিগত জামায়াত-বিএনপি সরকারের আমলে বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের কল্যাণ ও অবসর সুবিধা বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। বর্তমান সরকার ২০০৯ সালের পর থেকে এ পর্যন্ত ১ লাখ ৪৪ হাজার ১০৩ জন শিক্ষককে মোট ৩ হাজার ৫৪৯ কোটি টাকা কল্যাণ ও অবসর সুবিধা প্রদান করেছে। ক্রমান্বয়ে অবসরে যাওয়া শিক্ষক-কর্মচারীদের ভাতা প্রদান করা হচ্ছে
এর আগে শিক্ষামন্ত্রী অনলাইন ব্যবস্থাপনায় আবেদন গ্রহণ, যাচাই-বাছাই এবং টাকা প্রেরণ ব্যবস্থার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর মো. মাহাবুবুর রহমান, শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের সদস্য সচিব অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু ও অবসর সুবিধা বোর্ডের সদস্য সচিব অধ্যক্ষ শরীফ আহমদ সাদী বক্তব্য রাখেন ।