২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট অধিবেশন শুরু

প্রকাশিত: ৮:২৯ অপরাহ্ণ, জুন ৫, ২০১৮

২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট অধিবেশন শুরু
দশম জাতীয় সংসদের ২১তম অধিবেশন তথা বাজেট অধিবেশন আজ থেকে শুরু হয়েছে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে আজ বেলা সোয়া ১১টায় দিনের কার্যসূচি শুরু হয়। এর আগে কার্যউপদেষ্ঠা কমিটির বৈঠকে বাজেট অধিবেশনের সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়। আগামী ৭ জুন বৃস্পতিবার ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট সংসদে পেশ হবে। এরপর দীর্ঘ আলোচনা শেষে আগামী ৩০ জুনের মধ্যে বাজেট পাস হবে। এবছরের শেষ দিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। সে হিসেবে এবারের বাজেট অধিবেশনই হচ্ছে শেষ বাজেট অধিবেশন। অর্থমন্ত্রীর বিভিন্ন আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে জানা গেছে, এবারের বাজেটের আকার হবে ৪ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকা। যা দেশের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ বাজেট। নির্বাচনী বছরের বাজেট অধিবেশন হওয়ায় অনেক সময় একে ‘নির্বাচনী বাজেট’ও বলা হয়ে থাকে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে কার্যউপদেষ্ঠা কমিটির বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, আ. স. ম ফিরোজ, সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন প্রমুখ। এদিকে সকালে কার্যউপদেষ্ঠা কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাজেট অধিবেশন চলবে আগামী ১২ জুলাই পর্যন্ত। তবে স্পিকার প্রয়োজন মনে করলে এর সময়সীমা বাড়াতে বা কমাতে পারেন। রমজানের সময় প্রতিদিন বেলা ১১টায় অধিবেশন শুরু হবে। তবে ঈদের পর আগের মতোই বিকেলে অধিবেশন শুরু হবে। প্রতিবারের ন্যায় এবারো ডিজিটাল পদ্ধতিতে অর্থাৎ পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে বাজেট উপস্থাপন করা হবে।বাজেটকে ব্যাপক অংশগ্রহণমূলক করার লক্ষ্যে অর্থ বিভাগের ওয়েবসাইট িি.িসড়ভ.মড়া.নফ -এ বাজেটের সকল তথ্যাদি ও গুরুত্বপূর্ণ দলিল যে কোনো ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান পাঠ ও ডাউনলোড করা যাবে এবং দেশ বা বিদেশ থেকে ওই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফিডব্যাক ফরম পূরণ করে বাজেট সম্পর্কে মতামত ও সুপারিশ প্রেরণ করা যাবে। প্রাপ্ত কল মতামত ও সুপারিশ বিবেচনা করা হবে। জাতীয় সংসদে বাজেট অনুমোদনের সময়ে ও পরে তা কার্যকর করা হবে।