২০ দলীয় জোট ছাড়ল ইসলামী ঐক্যজোট

প্রকাশিত: ৭:১২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৭, ২০১৬

২০ দলীয় জোট ছাড়ল ইসলামী ঐক্যজোট

এসবিএন ডেস্ক: বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে ইসলামী ঐক্যজোট।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে দলের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আবদুল লতিফ নেজামী।

তিনি বলেন, ‘২০ দলীয় জোটের সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই।’

সম্মেলনে ২০ দলীয় জোটে থাকা না থাকা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনার পর তারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানান নেজামী।

গত ৫ জানুয়ারি দশম সংসদ নির্বাচনের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে রাজধানীতে বিএনপির সমাবেশে ২০ দলীয় জোটের শরিক ইসলামী ঐক্যজোটের নেতাকর্মীদের দেখা যায়নি। এছাড়া পৌর নির্বাচনের আগে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে জোটের শীর্ষ নেতাদের বৈঠকে এবং মহাসচিব পর্যায়ের বৈঠকেও যোগ দেয়নি ইসলামী ঐক্যজোট।

উল্লেখ্য, বিএনপির নেতৃত্বে ১৯৯৯ সালে জামায়াতে ইসলামী, জাতীয় পার্টি (একাংশ) এবং ইসলামী ঐক্যজোট মিলে গঠিত হয় চারদলীয় জোট। পরে জোটের কলেবর বেড়ে ২০ দল হয়। এর মধ্যে ইসলামী ঐক্যজোট বিভক্ত হয়ে গেলেও, একটি অংশ সবসময়েই বিএনপির সঙ্গে জোটে ছিল।

তবে খালেদা জিয়া ও মহাসচিব পর্যায়ের ওইসব বৈঠকে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের নেতারা অংশ না নিলেও তারা এখনও ২০ দলীয় জোট ছাড়ার ঘোষণা দেয়নি।

জোট ছাড়ার কারণ হিসেবে পরে এক প্রশ্নের জবাবে ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান নেজামী সমকালকে বলেন, ‘আমরা ২০ দলীয় জোটে থাকাকালীন ভালোভাবে দলীয় কাজকর্ম করতে পারিনি। জোটেও ঠিকমতো সময় দিতে পারিনি। এ টানাপড়েনে আমরা সাংগঠনিকভাবে অনেক পিছিয়ে পড়েছি। তাই সংগঠনকে জোরদার করতে জোট ছেড়ে বেরিয়ে এসেছি।’

তবে বিএনপির তরফে অনেকদিন ধরেই অভিযোগ করা হচ্ছিল, ২০ দলীয় জোট ভাঙার জন্য সরকারের পক্ষে থেকে চেষ্টা করা হচ্ছে। জোট ছাড়ার জন্য সরকারের কোনো চাপ ছিল কি-না, এ প্রশ্নের জবাবে নেজামী বলেন, ‘জোট ছাড়ার পেছনে সরকারের কোনো চাপ ছিল না।’

গুঞ্জন রয়েছে, বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটে চলছে টানাপড়েন। জোটের অভ্যন্তরেই কথা উঠেছে হেফাজতে ইসলাম-সংশ্লিষ্ট কয়েকটি দল মামলা ও ধরপাকড় থেকে ‘বাঁচতে’ সরকারের দিকে ঘেঁষছে। এছাড়া মূল্যায়ন না করায় বিএনপির ওপর আগে থেকেই ক্ষুব্ধ কয়েকটি ধর্মভিত্তিক দল। পৌর নির্বাচনে ‘বঞ্চিত’ হয়ে ক্ষোভ আরও বেড়েছে। এসব দলের অধিকাংশ নেতা হেফাজত সহিংসতার বিভিন্ন মামলার আসামি। তারা আবার হেফাজতেরও দায়িত্বশীল নেতা। ইসলামী ঐক্যজোট মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিবের পদে রয়েছেন। সহিংসতার একাধিক মামলার ‘পলাতক’ আসামি তিনি।

হেফাজত-সংশ্লিষ্ট দলগুলোর নেতারা জানান, গত দুই বছরে মামলার কারণে তাদের স্বাভাবিক কার্যক্রম চালাতে পারছেন না। বিএনপিও প্রাপ্য মূল্যায়ন করছে না। তাই অস্তিত্ব রক্ষায় সরকারের সঙ্গে ‘সমঝোতা’ করে চলছে। মামলা থেকে বাঁচতে ঐক্যজোট ও জমিয়ত ২০ দল ছাড়তে পারে বলেও গুঞ্জন রয়েছে। ধর্মভিত্তিক দলগুলো ২০ দল ছেড়ে নতুন জোট গড়তে পারে।

বিএনপির কোন ত্রুটি-বিচ্যুতি বা নেতিবাচক আচরণের কারণে জোট ছেড়েছেন কি-না, এ প্রশ্নের না-সূচক জবাব দেন ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান নেজামী।

২০ দলীয় জোট ছাড়ার ব্যাপারে বিএনপিকে আগেই জানিয়েছেন কি-না, এ প্রশ্নের জবাবে আবদুল লতিফ নেজামী বলেন, ‘না, আগে জানাইনি। এখন তারা জানবেন।’

ছড়িয়ে দিন