৪৭ বছর পরেও প্রেতাত্মারা কিভাবে বেঁচে থাকতে পারে ?

প্রকাশিত: ১২:২৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৮

৪৭ বছর পরেও প্রেতাত্মারা কিভাবে বেঁচে থাকতে পারে ?

মাঈদুল ইসলাম প্রধান

স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরেও প্রেতাত্মারা কিভাবে বেঁচে থাকতে পারে ? উত্তর খুজি, পাই না…

হতবাক হয়ে যাই,যখন দেখি স্বাধীনতার পরে জন্ম নেয়া এই দেশেরই অনেক সন্তান এখনো স্বাধীনতা বিরোধীদের পক্ষে নাক উচু করে কথা বলে । স্বাধীনতার ভুমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলে ।স্বাধীনতার সপক্ষের কোন কথা শুনলে অশ্রাব্য ভাষায় প্রতিবাদ করে…!

অথচ এই স্বাধীনতা বিরোধীরা কেবল আমাদের স্বাধীনতাই কেড়ে নিতে চায় নি, ওরা এখনকার বার্মিজদের মত এদেশের স্বাধীনতাকামীদের হত্যা করেছে,আমাদের বোনদের ধর্ষণ করতে পাকিস্তানিদের হাতে তুলে দিয়েছে,মুক্তিযোদ্ধাদের সম্পদ লুটপাট করে নিয়েছে,মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন যুবা মুক্তিবাহিনীর ছেলেগুলো কোথাও লুকিয়ে থাকলে তারা সেই খবর পাকিস্তানের সেনাদের দিয়ে তাদের নিষ্ঠুর নির্যাতন করে হত্যা করেছে;এমনকি, বিজয়ের মাত্র দুইদিন আগে আমাদের বিজয় নিশ্চিত বুঝতে পেরেই জাতীকে মেধাশুণ্য করতে এদেশের সবচেয়ে মেধাবীদের রাতের আধারে ধরে নিয়ে গিয়ে নিষ্ঠুর,পৈশাচিকভাবে হত্যা করেছে।

অবাক লাগে দেখে যে,এদের কেউ কেউ স্বাধীনতার সুফল পায়নি বলে এখনো বড় গলায় কথা বলে,এখনো কথায় কথায় এদেশটাকে নরকের আস্তানা বলে উল্লেখ করে,এদেশের কোন ভাল কিছুতেই এদের গা জ্বালা করে।

এদেরই কেউ কেউ নির্বিচারে বাসে থাকা,রাস্তায় থাকা,ট্রেনে থাকা এদেশের নিরাপরাধ পথযাত্রী বয়স্ক,শিশু,নারীর গায়ে একের পর এক পেট্রোল বোমা ছুড়ে মারতেও এদের হাত একবারও কেপে ওঠে না।

এর কারন কি?এদের পুর্ব প্রজন্ম যেটা করেছে এরাও সেটাই কেন ধারন করবে?এদেরকে কি স্বাধীন সরকার দেশের সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত করেছে?স্কুল কলেজে পড়া,ব্যাবসা করা নিষিদ্ধ করেছে? চলাফেরা করতে কেউ কি এদের স্বাধীনতা বিরোধীর বাচ্চা বলে গালি দিয়েছে?

আমি নিশ্চিত, বাঙালিরা এদেরকে কখনই তাদের অতীতের ঘৃণ্য কাজ অনুপাতে আচরণ করেনি। তাহলে কেন স্বাধীনতার এত বছর পরেও সেই স্বাধীনতা বিরোধীদের প্রেতাত্মাগুলো আমাদের সামনে এভাবে দম্ভ করে ঘুরে বেড়ায়? জঘন্য ভাষায় কমেন্ট করে? এ জাতীর প্রতি প্রতিশোধ নিতে চায়?…কেন?

অতীতের এত জঘন্য, ঘৃণ্য কৃতকর্মের জন্য জাতীর কাছে একবারের জন্য হলেও কি তাদের ক্ষমা চাওয়া উচিৎ ছিল না?
তারা কি তা কখনই চেয়েছে?
এরা কি আমাদের স্বাধীনতাকে কিঞ্চিত পরিমানেও মনে ধারণ করে?এরা কি আমাদের স্বাধীনতার মাসে স্বস্তিতে থাকে,আমাদের মত আনন্দ পায়? কেন পায় না?

কারন, এরা তাদের পুর্ব পুরুষদের মতই আমাদের স্বাধীনতায় বিশ্বাসও করে না,গ্রাহ্যও করে না।

করবে কি করে,এরা ছোট থেকেই এদের পরিবারের মুখে স্বাধীনতার পক্ষের কোন কথাই শোনেনি,শুনেছে কেবলই বিকৃত স্বাধীনতার গল্পের কথা। এরা শুনেছে আমরাই কিভাবে মোসলমান বড় দেশটাকে কেটে দুইভাগ করেছি,মুসলিম বিশ্বে নিজেদের শক্তি কমিয়ে ফেলেছি এসব কথা। এরা শোনেনি,কিভাবে ঐ পাকি মুসলিমরা আমাদের মুসলিম বোনদের ধরে নিয়ে মদ খেয়ে,নেশা করে অত্যাচার করেছে, ধর্ষণ করেছে,ধর্ষণ শেষে হত্যা করেছে। এই পাকিস্তানিরাই নাকি আবার মুসলিম!
এরা শোনেনি,কিভাবে ঐ পাকি মুসলিমরা এদেশের মানুষদের কথায় কথায় অপমান করেছে,বঞ্চিত করেছে, হত্যা করেছে এদেশের লাখো গরীব কৃষক মুসলিমকে।

এই নব্য স্বাধীনতা বিরোধীদের পরিবার যেমন,তারাও তেমন। খুব অবাক লাগে স্বাধীনতার ৪৮ বছর পরও স্বাধীনতা বিরোধীদের এই প্রজন্মের প্রতিনিধিরাও তাদের বাবাদের মত কোনভাবেই ভুল স্বীকার করে এদেশের মানুষের কাছে ক্ষমা চায় না; হয়তো চাইবেও না আর কখনো।
উল্টো এরা মুক্তিযুদ্ধে হেরে যাবার বদলা নিতে এদেশকে ধ্বংসের কুটকৌশলে মেতে থাকে।

অথচ, স্বাধীনতা বিরোধীদের সেই সন্তানরাই এখন আবার আমাদেরই ভোটে এমপি হতে চায়,এদেশের মন্ত্রী হয়ে লাখো শহীদের রক্তের বন্যায় পাওয়া আমাদের জাতীয় পতাকা ব্যবহার করে আমাদের দিকে ব্যাঙ্গাত্মক হাসি ছুড়ে দিতে চায়…!

মুক্তিযুদ্ধের সময়ের মানুষগুলো যে অপারাধ করেছে সেটাতো আর চোখে দেখিনি,কিন্তু এই যুগের দেশপ্রেমশুণ্য স্বাধীনতা বিরোধী প্রজন্মের নিজ দেশের প্রতি ক্রোধ দেখলে, তাদের হীনমন্যতা,অজ্ঞতা ও নিকৃষ্টতার প্রতি করুনা লাগে…

লাইভ রেডিও

Calendar

April 2024
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930